HomeRacingবাংলা পক্ষের কেশপুর শাখার উদ্যোগে পালিত হলো বিপ্লবী ক্ষুদিরাম বসুর জন্মদিবস

বাংলা পক্ষের কেশপুর শাখার উদ্যোগে পালিত হলো বিপ্লবী ক্ষুদিরাম বসুর জন্মদিবস

নিউজ ডেস্ক:
আজ ক্ষুদিরাম বসুর জন্মভিটা মোহবনীতে পশ্চিম মেদিনীপুর বাংলা পক্ষের কেশপুর শাখার উদ্যোগে পালিত হলো বিপ্লবী ক্ষুদিরাম বসুর জন্মদিবস। যেখানে উপস্থিত ছিলেন বাংলা পক্ষ কেশপুর শাখার সহযোদ্ধা পার্থ নন্দী, চিন্ময় বড় দোলই, সমীরণ বড় দোলই, প্রণব কারক, বিশ্বজিৎ বধূক ও অন্যান্যরা।

ক্ষুদিরামের জন্মস্থান মোহবনীতে ক্ষুদিরাম বসুর স্মৃতি রক্ষায় গড়ে উঠেছে একটি তীর্থক্ষেত্র। সেই তীর্থক্ষেত্রে বসানো হয়েছে ক্ষুদিরামের একটি বড়ো আবক্ষ মূর্তি। বাংলা পক্ষের তরফে সেই মূর্তিতে মাল্যদান ও পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করে পালন করা হয় ক্ষুদিরাম বসুর জন্মদিবস।

বীর বিপ্লবী ক্ষুদিরাম বসুকে স্মরণ করে তাঁর মূর্তিতে মাল্যদানের পর বাংলা পক্ষের কেশপুর শাখার উপস্থিত সহযোদ্ধারা ক্ষুদিরামের আদর্শ বাংলার ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার শপথ নেন৷ তাঁরা জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতির জন্য এ বছর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা করা সম্ভব হয়নি। আগামী বছর ঘটা করে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ক্ষুদিরাম বসুর জন্ম ও মৃত্যুদিন দুই-ই পালন করা হবে৷

কেশপুর বাংলা পক্ষের সহযোদ্ধা চিন্ময় বড় দোলই বলেন, “১৮ বছর বয়সী যুবকের আত্মবলিদান ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে আছে ও থাকবেও। সেটা হিন্দি সাম্রাজ্যবাদ আমাদের ভুলিয়ে দিতে চাইলেও বাংলা পক্ষ এইভাবে মনে করিয়ে দেবে। বাংলা ও বাঙালি তাদের অধিকার একদিন ঠিক পুনঃপ্রতিষ্ঠা করবে। ক্ষুদিরাম বসুর জন্মদিবসে এটাই আমাদের শপথ।”

কেশপুর বাংলা পক্ষের আরেক সহযোদ্ধা পার্থ নন্দী বলেন, “ক্ষুদিরাম বসুর দেখানো পথ যুব সমাজের চলার পথের পাথেয় হোক।কণ্ঠ হোক উদ্দীপ্ত, অগ্রসর হোক অভয়, জাগ্রত হোক প্রতিবাদ। মনের গহনে ক্ষুদিরাম অমর। ক্ষুদিরামের আদর্শকে আমরা বাংলা পক্ষ থেকে বাংলার ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে চাই৷”

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments